Sunday , April 22 2018
Breaking News
Home / প্রবাসী সংবাদ / সৌদি প্রবাসীদের জন্য সুখবর

সৌদি প্রবাসীদের জন্য সুখবর

সৌদি আরবে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রথমে ভোটার করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেল ৩টায় কমিশন বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।

বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা যায়, প্রবাসীদের ভোটার প্রক্রিয়াকে সহজ করতে প্রবাসী সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থা, স্টেকহোল্ডার, নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল, গণ্যমান্য ব্যক্তি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি নিয়ে আগামী মাসে একটি সেমিনারের আয়োজন করবে কমিশন। তারে মতামত ও পরামর্শ নিয়ে প্রবাসীদের প্রবাসে ভোটার করার কার্যক্রম শুরু হবে। ইতমধ্য রিয়াদের এ্যামব্যাসাডরের সঙ্গেও সবধরনের আলোচনা করে ফেলেছে ইসি।

নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, সৌদি আরবে আমাদের সবথেকে বেশি প্রবাসী বসবাস করেন। এ কারণে দেশটি থেকে প্রথমে ভোটার করা হচ্ছে। ধাপে ধাপে অন্যান্য দেশে অবস্থানরত প্রবাসীদের ভোটার করবে ইসি। প্রবাসীদের প্রথমে ভোটার করা হবে। পরে যাচাই-বাছাই করে স্মার্টকার্ড দেয়া হবে।

ইসি সূত্র জানা যায়, মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ এবং আমেরিকাসহ বিশ্বের অনেক দেশে বহুসংখ্যক বাংলাদেশি নাগরিক অবস্থান করছে। স্বাধীনতার এতো বছর পরও তারা দেশে আসার সুযোগ পান না। যার ফলে ভোটার তালিকায় তাদের নাম যেমন অন্তর্ভুক্ত হয় না, তেমনি তারা জাতীয় পরিচয়পত্র থেকে বঞ্চিত। রাষ্ট্রের পরিচিতি পত্র না থাকায় নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন তারা।

দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখা এসব প্রবাসী বাঙালিদের ভোটার করতে নানা উদ্যোগ নেয়া হলেও উদ্যোগে ঘাটতি থাকায় তা আর সামনের দিকে এগোয়নি। বর্তমান খান মো. নুরুল হুদা কমিশন গত ফেব্রুয়ারিতে দায়িত্বে এসে প্রবাসীরে ভোটার করার সুপরিকল্পিক পদক্ষেপ নেয়।

গত বছরে জেলা প্রশাসক সম্মেলনে প্রবাসীদের ভোটার করার প্রস্তাব রেখেছিলেন কয়েকজন ডিসি। ২০১৭ সালের ২২ আগস্ট কাপাসিয়ায় আইডি কার্ড বিতরণ করতে সিইসি সেখানে গেলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা তাদের ভোটার করতে অনুরোধ করে। বিভিন্ন পক্ষের দাবি জোরালো হলে কমিশনকে বিষয়টি ভাবিয়ে তোলে। নানা বিবেচনা করে সৌদি আরবের বাঙালিদের ভোটার করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

১৯৯৮ সালে দেশের উচ্চ আদালত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটাধিকার সংবিধান স্বীকৃত বলে ঘোষণা দেন। দীর্ঘ ১৮ বছরেও সেই ঘোষণা বাস্তবায়নের মুখ দেখেনি। বিশ্বের ১৫৭টি দেশে কোটির উপরে প্রবাসী বাংলাদেশি রয়েছেন। বর্তমান কমিশনের এই উদ্যোগে তাদের দীর্ঘদিনের পুঞ্জীভূত ক্ষোভের অবসান হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্ট নীতি-নির্ধারকরা। এর আগে ১/১১ ড. শামসুল হুাদা কমিশনের দুজন কমিশনার এ বিয়য়ে অভিজ্ঞতা নিতে যুক্তরাজ্য সফর করেছিলেন। এর পেছনে কয়েক লাখ টাকা ব্যয় হয়েছিল। এ নিয়ে সে সময় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন সাবেক কমিশনাররা।

এদিকে আজকের কমিশন বৈঠকে, প্রবাসী ভোটার ছাড়াও ১২ সালের পরে নতুন ৯৩ লাখ ভোটারদের লেমনেটেড কার্ড দেয়া, হিজড়াদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে আলোচনা হবে।

Loading...